সিরিজ হারল ভারত

ইজাব টিভি ডেস্কঃ নাটকীয় প্লট পরিবর্তন। এই জন্যই ক্রিকেট এত জনপ্রিয়। টি-২০ সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার পর অবিশ্বাস্যভাবে ঘুরে দাঁড়াল নিউজিল্যান্ড। অকল্যান্ডে দ্বিতীয় একদিনের ম্যাচে ভারতকে হারিয়ে ওয়ানডে সিরিজ জিতে নিল কিউয়িরা।

দরকারের সময় হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ল ভারতীয় ব্যাটিং লাইন। একমাত্র শ্রেয়স আইয়ার ছাড়া কোনও ভারতীয় ব্যাটসম্যান রান করতে পারলেন না। কোহলি রান না পেলে ভারতীয় দল ঠিক কতটা সমস্যায় পড়তে পারে, সেটা আরও একবার প্রমাণ হয়ে গেল। ২-০ সিরিজ হেরে ভারতীয় ড্রেসিংরুমে এখন নিস্তব্ধতা। রস টেলর চমক দেখিয়ে চলেছেন। একদিনের সিরিজের প্রথম ম্যাচে ম্যাচ জেতানো সেঞ্চুরি করেছিলেন। অকল্যান্ডেও সেই ফর্ম নিয়ে এসেছেন। নিউজিল্যান্ড সফরে ভারতীয় বোলারদের একাধিকবার পরীক্ষা নিয়েছেন এই সিনিয়র ব্যাটসম্যান। টেলর এদিন ৭৪ বলে ৭৩ রানের ইনিংস না খেললে নিউ জিল্যান্ডের ইনিংস আরও আগে থেমে যেতে পারত।

শুরুটা ভাল হলেও ম্যাচ গড়ানেরা সঙ্গে সঙ্গে কিউয়ি ব্যাটসম্য়ানদের চেপে ধরেন ভারতীয় বোলাররা। ইনিংস শ্লথ হতে থাকে। তবে শেষ পর্যন্ত মার্টিন গাপ্টিলের ৭৯ ও টেলরের ৭৩ রানের সৌজন্যে নিউজিল্য়ান্ড ২৭৩ রান করে। কুলদীপ যাদবের জায়গায় দলে এসে যুজবেন্দ্র চাহ্বাল তিন উইকেট নেন। ২৭৩ রান বর্তমান ক্রিকেটে বড় কোনও রান নয়। তার উপর ভারতীয় দলের বিশ্ব সেরা ব্যাটিং লাইনেরতো চাপে পড়ার কথাই নয়। কিন্তু জীবনের প্রতিটা দিন একইরকম হয় না। কোহলিদের বুঝিয়ে দিলেন সাউদি, বেনেট, নিশামরা।

ওপেনিংয়ে পৃথ্বী শ ও মায়াঙ্ক আগরওয়ালের জুটি সফল হয়নি। এরপর কোহলিও ১৫ রান করে আউট হয়ে যান। কিউয়ি বোলাররা তখনই ভারতীয় ব্যাটিং লাইনকে চিপে ধরেন। শ্রেয়স আইয়ার লড়াই করার চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু প্রবল চাপে উইকেট ছুঁড়ে দিয়ে যান। এরপর জাদেজা, সাইনি মিলে শেষ চেষ্টা করেন। কিন্তু ততক্ষণে ম্য়াচ হাত থেকে বেরিয়ে গিয়েছে। ২৫১ রানে গুটিয়ে যায় ভারতের ইনিংস। কোহলিরা হেরে যায় ২২ রানে।