অর্থনীতিতে সড়ক ও নৌপরিবহন থেকে অবদান ১ লাখ ৮৭ হাজার কোটি টাকা

ইজাব টিভি ডেস্কঃ অর্থনীতিতে সড়ক ও নৌপরিবহন খাতের অবদান ১ লাখ ৮৭ হাজার ৫০০ কোটি টাকা। এক্ষেত্রে সড়ক পরিবহন খাতের অবদান ১ লাখ ৭৩ হাজার ৪০০ কোটি টাকা এবং নৌপরিবহনের অবদান ১৪ হাজার ১০০ কোটি টাকা। গতকাল সোমবার বেসরকারি বাণিজ্যিক যান্ত্রিক এবং অযান্ত্রিক সড়ক ও নৌযান জরিপ ২০১৯’ প্রকাশনার মোড়ক উম্মোচন অনুষ্ঠানে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়। মর্ডানাইজেশন অব ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টস স্ট্যাটিসটিকস প্রকল্পের আওতায় জরিপ পরিচালনা করে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো । আগারগাঁওয়ের বিবিএস মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব মোহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহনের চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ মজুমদার। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর মহাপরিচালক তাজুল ইসলাম।

জরিপে বলা হয়, যানবাহনের মোট সংখ্যা ২৬ লাখ ৫৯ হাজার ২৫৭টি। এর মধ্যে যাত্রীবাহী পরিবহনের সংখ্যা ২৪ লাখ ২২ হাজার ১২৯টি। এর মধ্যে আবার যান্ত্রিক যানবাহনের সংখ্যা ১৭ লাখ ৭৮ হাজার ৮৯৪টি। মালবাহী পরিবহনের সংখ্যা ২ লাখ ৩৭ হাজার ১২৯টি। এর মধ্যে আবার যান্ত্রিক পরিবহনের সংখ্যা ১ লাখ ৯৪ হাজার ৩১৮টি। অযান্ত্রিক পরিবহনের সংখ্যা ৬ লাখ ৪৩ হাজার ২৩৪টি। যানবাহনে কর্মরত জনবলের মোট সংখ্যা ৩১ লাখ ৭৮ হাজার। সড়ক পরিবহন খাতে কর্মরত জনবলের সংখ্যা ৩৩ লাখ ৬ হাজার জন। যানবাহন পরিচালনের মোট ব্যয় ৬৪,৫০০ কোটি টাকা টাকা। এর মধ্যে বেতন ভাতা ১৪০০০ কোটি টাকা। জ্বালানি খাতের ব্যয় ২৮৯০০ কোটি টাকা। নৌযান পরিচালন মোট ব্যয় ১১৯৩০ কোটি টাকা। এরমধ্যে বেতন ভাতা ২৪০ কোটি টাকা, জ্বালানি ৮৪৬০ কোটি টাকা। বিআরটিএ চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ মজুমদার বলেছেন, বিআরটিএ-এর হিসাব অনুযায়ী প্রতিবছর আমরা ৪ লাখ গাড়ির রেজিস্ট্রেশন দিচ্ছি। আমাদের জরিপের সঙ্গে বিবিএসের জরিপের কিছুটা ফারাক রয়েছে। তবু আমরা আশা করি এই জরিপ থেকে পাওয়া ফলাফলে আমরা সুফল পাব। অনুষ্ঠানে পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব মোহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী বলেন, আমরা একটি জিডিপি বেজ লাইন তৈরি করছি। এই পরিসংখ্যান আমাদের বলছে এই খাতেও আমরা বেশ এগিয়ে যাচ্ছি। বিশেষ করে নৌপরিবহন ও সড়ক খাতে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। বর্তমানে এই খাতে জিডিপির অবদান আসছে ৮ শতাংশ।