করোনাভাইরাসে রাজশাহী মেডিক্যালে আরো ২২ জনের মৃত্যু

ইজাব টিবি ডেস্কঃ করোনাভাইরাস ও এর উপসর্গ নিয়ে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর আগের ২৪ ঘণ্টায় ১২ জনের মৃত্যু হয়েছিল রামেক হাসপাতালে। ফলে এক দিনের ব্যবধানে আবারো মৃত্যু বাড়লো। রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী সাংবাদিকদের এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, বুধবার সকাল ৮টা থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার মধ্যে বিভিন্ন সময়ে এই ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে পাঁচজন ও করোনা উপসর্গ নিয়ে ১৭ জন মারা গেছেন।
এ নিয়ে গত ৩১ দিনে (১ জুন সকাল ৮টা থেকে ১ জুলাই সকাল ৮টা পর্যন্ত) রামেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটে মারা গেলেন ৩৭৭ জন।

এর আগে গত ২৯ জুন রামেক হাসপাতালে সর্বোচ্চ রেকর্ড ২৫ জনের মৃত্যু হয়েছিল। রামেক হাসপাতালের পরিচালক জানান, মৃত ২২ জনের মধ্যে রাজশাহী জেলারই ১৪ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের একজন, নাটোরের একজন, নওগাঁর পাঁচজন ও ঝিনাইদহের একজন ছিলেন। আর করোনা সংক্রমণে মারা গেছেন রাজশাহীর তিনজন, নওগাঁর একজন ও ঝিনাইদহের একজন। এ ছাড়া উপসর্গে মারা গেছেন রাজশাহীর ১১ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের একজন, নাটোরের একজন ও নওগাঁর চারজন।

রামেক হাসপাতাল পরিচালক আরো জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতালে নতুন ভর্তি হয়েছেন ৬৬ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৪৬ জন। আর করোনা আক্রান্ত হয়ে ১৯৫ জন এবং সন্দেহভাজন ও উপসর্গ নিয়ে রামেক হাসপাতালে ২৬৭ জন ভর্তি রয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতালে ৪০৫টি শয্যার বিপরীতে রোগী ভর্তি ছিলেন ৪৬২ জন। ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতালের পিসিআর মেশিনে ১৮৮টি নমুনা পরীক্ষায় ৪৭ জনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজের পিসিআর মেশিনে ৩৬৫টি নমুনায় ২০১ জনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। দুই ল্যাবে মোট ৫৫৩টি নমুনা পরীক্ষায় ২৪৮ জনের করোনা পজিটিভ ফল আসে। পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ৩৯ দশমিক ৯০ শতাংশ বলে জানান তিনি।